আরাফ নামের অর্থ কি ?

আরাফ নামের অর্থ কি ? বাংলা ইসলামিক নাম গুলোর মধ্যে আরাফ খুব সুন্দর ও জনপ্রিয় একটি নাম। নামটি শুনতে যেমন মধুর তেমনি এর রয়েছে সুন্দর একটি অর্থ। চলুন জেনে নেই আরাফ নামের অর্থ কি এবং এই নামটির সাথে সম্পর্কিত সকল গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

আরাফ নামের অর্থ কি ?

আরাফ (Araf) শব্দটির শাব্দিক আভিধানিক বাংলা অর্থ হল উচ্চতা, শীর্ষ, শেখর।

আরাফ নামের ইংরেজি অর্থ কি ?

আরাফ নামটির ইংরেজি বানান হলো: Araf. আরবিক শব্দটির ইংরেজি শাব্দিক অর্থ হলো Height, Top , Peak ইত্যাদি।

আরাফ নামের আরবি অর্থ কি ?

আরাফ শব্দটি মূলত একটি আরবী শব্দ। এই আরবি শব্দটির বাংলা অর্থ উচ্চতা, শীর্ষ, শেখর।

আরাফ কি ইসলামিক নাম ?

আরাফ অবশ্যই একটি ইসলামিক নাম। আপনারা যারা বাচ্চার একটি সুন্দর ইসলামিক নাম রাখতে চাচ্ছেন, তারা এই নামের অর্থ ভালোভাবে জেনে নিন। শাব্দিক ভাবে এটি উচ্চতা, শীর্ষ বা শেখর বুঝালেও এর একটি ইসলামিক পরিভাষা রয়েছে।আরাফ নামের অর্থ কি

আরাফ নামের ইসলামিক অর্থ কি ?

আমরা জানি আল-কোরআনে একটি সূরার নাম “আল আরাফ” । এটি একটি মাক্কী সূরা। এই সূরাটিতে ৪৬ ও ৪৭ নম্বর আয়াতে আসহাবে আরাফ বা আরাফে বসবাসকারীদের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এই কারণেই সূরাটির নাম রাখা হয়েছে আল আরাফ। আসুন দেখি এই আয়াতগুলিতে আরাফ সম্পর্কে কি বলা হয়েছে:

“আর তাদের মধ্যে থাকবে পর্দা এবং আরাফের উপর থাকবে কিছু লোক, যারা প্রত্যেককে তাদের চিহ্ন দ্বারা চিনবে। আর তারা জান্নাতের অধিবাসীদেরকে ডাকবে যে ‘ তোমাদের উপর সালাম’। তারা (এখনো) তাতে প্রবেশ করেনি তবে তারা আশা করবে।”
(সূরা আল আরাফ -৪৬)

এই আয়াতে আরাফ হলো জান্নাত ও জাহান্নামের মধ্যবর্তী প্রাচীর বা স্থান।

আরো জানুনঃ>>> রাফসান নামের অর্থ কি

জান্নাত ও জাহান্নামের মধ্যবর্তী প্রাচীর বেষ্টনীর উপরিভাগকে আরাফ বলা হয়। এই আয়াতে বলা হয়েছে, আয়াতে বলা হয়েছে যে হাশরে এই স্থানে কিছু সংখ্যক লোক থাকবে। তারা জান্নাত ও জাহান্নাম উভয় দিকের অবস্থা নিরীক্ষণ করবে এবং উভয় পক্ষের লোকদের সাথে প্রশ্নোত্তর ও কথাবার্তা বলবে।

বিভিন্ন বর্ণনায় এসেছে যে আরাফবাসী হলো ওই সমস্ত লোকেরা যাদের সৎকর্ম ও অসৎ কর্ম সমান হয়ে যাবে। কেউ কেউ বলেন কিছু লোক এমন ও থাকবে, যারা জাহান্নাম থেকে তো মুক্তি পাবে, কিন্তু তখনও জান্নাতে প্রবেশ করবে না। তবে তারা জান্নাতে প্রবেশ করার আশা পোষণ করবে। তাদেরকেই আরাফবাসী বলা হয়।

আরাফ কি ছেলেদের নাম ?

আরাফ নামটি সাধারণত মুসলিম ছেলেদের ক্ষেত্রেই রাখা হয়। মেয়েদের ক্ষেত্রে এই নাম রাখার কোনো প্রচলন নেই।
আরাফ দিয়ে উল্লেখযোগ্য কিছু নাম
আরব শব্দটির সাথে অন্য শব্দ যোগ করে বেশ কিছু নাম নিচে উল্লেখ করা হলো:
মোহাম্মদ আরাফ, আরাফ রহমান, আরব ইকতিদার, আরাফ ইকবাল, আরাফ মাসাবিহ, আরাফ মুনতাসির আরাফ মালিক, আরাফ আয়াত, আরাফ হোসেন, তাহমিদ আরাফ, আরাফ শাহরিয়ার, আব্দুল্লাহ আল আরাফ ইত্যাদি।

আরাফ নামের বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ :

আরাফ নামের অনেক জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তি থাকলেও বিশ্ব বিখ্যাত কারো নাম আরাফ এখনো পাওয়া যায়নি। তবে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া সহ অনেকগুলো ইসলামিক দেশেই নামটি এখন বেশ জনপ্রিয়। সৌদি আরব এবং কাতারেও বর্তমানে এর প্রচলন দেখা যায়।

আরাফ নামটি সম্পর্কে আমাদের মতামত :

আরাফ নামটির বাংলা, ইংরেজি ও আরবি অর্থ আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরেছি। তাছাড়া ইসলামের পরিভাষায় আরাফ বলতে কী বোঝায় সেটাও আমরা এই আর্টিকেলে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। আমাদের সংগ্রহকৃত তথ্যের ওপর ভিত্তি করে এই নামটি আপনার সন্তানের নাম রাখার জন্য পছন্দনীয় কিনা সেটা সম্পূর্ণ আপনার সিদ্ধান্ত।

তবে আশা করছি আমাদের দেয়া তথ্য থেকে আপনি উপকৃত হয়েছেন।ভবিষ্যতে যেন আমরা এ ধরনের আরো নতুন নতুন তথ্য আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পারি সেজন্য আমাদের সাথেই থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x