কবিতা পাহাড়ি মেয়ে

পাহাড়ি মেয়ে
Gumanta Jahangir

অবাক হয়ে, হারিয়ে যাবো
মেঘের সাথে মিশে
পাহাড়ী মেয়ে, যাবি কি নিয়ে?
তোর পাহাড়ের দেশে

গভীর রাতে শোনাবি তুই
পাহাড়ীয়া যত গান
মুগ্ধ হয়ে গানের সুরে
হুক্কায় দেবো টান

চাঁদের আলো উপচে পড়ুক
কি আসে যায় তাতে
মাচাং ঘরে রাত কাটাবো
ঝিঁ ঝিঁ পোকার সাথে

রাজপূন্যাহ মেলা থেকে
কিনে দেবো তোকে চুড়ি
রাতের আধাঁরে উড়াবো দুজন
ফানুস নামক ঘুড়ি

পাহাড় থেকে পাহাড় ঘুরে
কেটে যাবে মোদের বেলা
বিকেল বেলা কলেজ মাঠে
খেলবো পানি খেলা

তোর চুলেতে বেণী করে
রাখবো পরিপাটি
তোর মুখেতো আলতো করে
দেবো চন্দন মাটি

বাজার থেকে কিনে দিবো
হোকনা যত দামি
পড়ে এসব সাজবি তুই
বাহারি যত খামি

কলসি কাখে পাহাড় চূড়ায়
তুই উঠবি একেঁবেকে
অবাক হয়ে তোর পানেতে
থাকবো শুধু দেখে

পাহাড়িয়া ছোট নদী থেকে
ধরবো দুজন মাছ
বাংলা মদে মাতাল হয়ে
করবো দুজন নাচ

ধর্ম নিয়ে জাতের দোহাই
যতই দিকনা লোকে
এসবের চিন্তা করে
ভুলা যাবে কি তোকে?

শান্তি বাহিনীর হুমকিটাও
পাইনা আমি ভয়
তুই যদি পাশে থাকিস
করবো সবি জয়

রাজবাড়িটা ফাঁকা বড়
কেউ তো নাই জানি
আমি না হয় রাজা হবো
তুই হবি মোর রাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *