কোকিল পাখির ছবি

কোকিল পাখির ছবি । বাংলাদেশে কোকিল একটি জনপ্রিয় পাখি। কারন এরা খুবই সুকণ্ঠি। বসন্ত কালে কোকিলের মিস্টি গানে চারিদিক মূখরিত হয়ে যায়। কোকিলের ডাক মানুষকে জানান দেয় যে বসন্ত এসে গেছে। এদের মূলত বসন্ত কালেই দেখা যায়। এ কারনে এদের বসন্তের অতিথি বলা হয়। পৃথিবীতে বহু প্রজাতির কোকিল রয়েছে। এই পর্যন্ত ২৬ প্রজাতির কোকিলের খোজ পাওয়া গিয়েছে। তবে বাংলাদেশে বেশিরভাগ কালো রঙ্গের কোকিল দেখা যায়। কিন্তু বিশ্বের অন্যান্য দেশে আরো অনেক ভিন্ন প্রজাতির কোকিল দেখা যায় । শালিক পাখির ছবি

কোকিল পাখির ছবি

কোকিল পাখির ছবি

কোকিল পাখির ছবি ১

কোকিল পাখির ছবি ২

কোকিল পাখির ছবি ৩

কোকিল পাখির ছবি ৪

কোকিল সম্পর্কে কিছু কথা

পাখি পৃথিবীকে যেমন সুন্দর করে তুলছে তেমনি এরা মানুষের অনেক উপকার ও করে। কতগুলো পাখি রয়েছে যার নাম সচারাচর মানুষ জানেন না। আবার অনেক পাখি রয়েছে যেগুলোর নাম আমাদের সকলেই জানি। এরকমই দুইটি পাখি হলো শালিক এবং কোকিল। এদের মানুষ খুব ভালো ভাবে চিনেন এবং এদের স্বভাব এবং বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের জন্য এদের জন্য বিভিন্ন প্রবাদ রয়েছে। বিশেষ করে কোন মানুষের কন্ঠ সুন্দর হলে বলে কোকিলা কন্ঠি, আবার সুযোগ সন্ধানীদের বলা হয় বসন্তের কোকিল।

Read More >>  Bangla koster sad sms

কোকিল পাখি মূলত কোন বাসা তৈরি করে না। এর অন্য প্রজাতির পাখির বাসায় ডিম পাড়ে। কারন কোকিল ধূর্ত প্রজাতির পাখি। এরা কাক বা অন্যান্য পাখির বাসায় গিয়ে ডিম পাড়ে। যখন পাখিরা বাসায় থাকে না তখন কোকিল গিয়ে ঐ পাখিটির একটি ডিম নিচে ফেলে নষ্ট করে দেয় এবং সেখানে নিজে একটি ডিম পাড়ে৷ যারা ফলে কোকিলের তার বাচ্চা প্রতিপালনের দায়িত্ব তাকে পালন করতে হয় না। সাধারণত কোকিলের ডিম ফুটে বাচ্চা বের হতে ১২-১৪ দিন সময় লাগে। যখন ডিম ফুটে বাচ্চা বের হয় তখন এদের গায়ে কোন লোম থাকে না। এবং যে পাখির বাসায় কোকিলের বাচ্চাটি জন্ম নেয় সে পাখির বাচ্চাকে ঠেলে এরা নিচে ফেলে দেয়৷ যার ফলে তারা পালক পাখিটি যে খাবার আনে বাচ্চাদের খাওয়াতে তা সম্পুর্ন কোকিলের বাচ্চাটি ভোগ করে৷ যার ফলে বাচ্চাটি দ্রুত বেড়ে ওঠে এবং উড়তে শিখলে পালক পিতামাতা কে ছেড়ে চলে যায়। এদের এই অন্য পাখির বাসায় ডিম পাড়ার অভ্যাসের কারনে এদে পরভৃত বা বাসা পরজীবি বলা হয়ে থাকে।

Read More >>  ভালোবাসার এস এম এস ও ছন্দ

এরা বিভিন্ন ধরনের পোকা মাকড় খেয়ে থাকে। এরা মূলত নিঃসঙ্গ পাখি কারন এরা সকল সময় একা থাকতেই পছন্দ করে বা থাকে। এবং কখনোই থাকার জন্য এরা বাসা তৈরি করে না৷ স্ত্রী কোকিল খুব বেশি ডাকে না। কিন্তু পুরুষ কোকিল প্রচুর পরিমাণ ডাকে এবং খুবই উচ্চস্বরে।

Leave a Comment