স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিনের দাম

স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিনের দাম : 

স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিনের মাধ্যমে খুব সহজেই যে স্বাবলম্বী হওয়া যায় তা কি আপনি জানেন? হয়তো বা না। কেননা স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিন কি কাজে ব্যবহৃত হয় তাই হয়তো আপনার অজানা। তবে চিন্তা করবেন না। আজকে আমরা স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিন সম্পর্কে অর্থাৎ এর ব্যবহার থেকে শুরু করে দাম পর্যন্ত আলোচনা করতে যাচ্ছি। সাথেই থাকুন-

স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিন দিয়ে কি কাজ করতে পারবেন ?

টি-শার্ট কিংবা ব্যানার ফেস্টুনের ডিজাইনের সাথে তো আমরা সবাই পরিচিত তাই না? আসলে এই সব জিনিসের গায়ে নকশা আকার জন্যই মূলত স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিন ব্যবহার করা হয়। আর অল্প পুজিতে ভালো মানের একটি ব্যবসা হিসাবে কিন্তু এর বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। আশা করি বিষয়টি ধরতে পেরেছেন।স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিনের দাম

এবার চলুন জেনে আসি আপনার বাজেটের মধ্যেই কি স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিন পাওয়া সম্ভব হবে কি না তা নিয়ে। অর্থাৎ আপনি যদি বেশি দাম কিংবা দাম সমন্ধে সন্দিহান হয়ে থাকার ফলে ব্যবসা শুরু করার ভয় করেন তাহলে আজকের আলোচনার পর তা থাকবে না আশা করি। জেনে আসি-

স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিনের দাম –

স্ক্রিন প্রিন্ট মেশিন মূলত ডিজাইন এর কাজেই ব্যবহার হয়ে থাকে। এটি একটি মুদ্রণ পদ্ধতি যা আপনি বাড়িতে এটি করতে পারেন। স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিন ব্যবহারের জন্য আপনার প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম এবং রাসায়নিকের প্রয়োজন হবে। তবে এই স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিনগুলোর মূল্য একটি রেন্জ এর মধ্যে পাওয়া যায়।

Read More >>  মাছ চাষে লাভ কেমন

স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিনগুলো মোটামুটি ভাবে দু’ধরনের হয়ে থাকে। একটি ম্যানুয়াল এবং অপরটি অটোমেটিক। ম্যানুয়াল প্রিন্টিং মেশনগুলতে বারবার কালি ভরানো ছাড়াও প্রিন্ট করাসহ অনেক কাজ ম্যানুয়ালি করতে হয়। অন্যদিকে অটোমেটিক প্রিন্টিং মেশিন গুলোতে শুধু ডিজাইন দিয়ে দিলেই প্রায় সকল কাজই অটোমেটিক হয়ে যায়। তাই স্বাভাবিক ভাবে অটোমেটিক প্রিন্টিং মেশিনগুলোর মূল্য বেশি।

ম্যানুয়াল প্রিন্টিং মেশিনগুলো বাংলাদেশি মূল্যে প্রায় মাত্র 5000 থেকে 7,000/8,000 টাকার মধ্যে পেয়ে যাবেন। তবে যদি খুবই ভালো মানের একটি প্রিন্টিং মেশিন আপনি আপনার ব্যবসা ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে চান তাহলে এটির মূল্য পড়বে মাত্র 40,000/45,000 টাকার উপরে। এই মূল্য লাখের    মাঝেও চলে যেতে পারে এবং অবশ্যই এই মূল্যে আপনি একটি অটোমেটিক প্রিন্টিং মেশিনই পেয়ে যাবেন।

আপনি হয়ত প্রিন্টিং মেশিন এর দাম শুনে ভাবতে পারেন এই ব্যবসা আপনাকে দিয়ে হবে না, কিন্তু ঠিক তা নয়। আপনি একটু গভীর ভাবে চিন্তা করলে দেখতে পারবেন যে খুব সহজেই এই ধরনের ব্যবসা ক্ষেত্র থেকে আপনি বেশ অনেক বড় একটি মোটা অঙ্কের কমিশন বা লাভ পেতে পারেন।
কীভাবে আপনি স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিন এর সাহায্যে লাভজনক ফলাফল নিতে পারেন তা দেখে নিন:-

ধরুন, আপনি 72 টি শার্ট ডিজাইন এর জন্য একটি কাস্টমার পেলেন। এখন এই 72টি শার্টের জন্য একটি অর্ডার মুদ্রণ করতে 25 মিনিটেরও কম সময় লাগবে এবং আপনি 6 টি রঙ এর জন্য কমপক্ষে 46,080 টাকা বা 640 টাকা প্রতি পিস চার্জ নেবেন। এক্ষেত্রে 11,520 টাকায় 72টি শার্টের জন্য প্রতি ডজনে কিনতে গেলে প্রতিটির জন্য প্রায় 160 টাকা লাগবে। আর স্ক্রিন তৈরি উপকরণগুলির জন্য  প্রতি স্ক্রিনে প্রায় গড় পড়বে মাত্র 280 টাকা।

Read More >>  ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড কি এবং এর পার্থক্য

তাহলে দেখুন মাত্র 25 মিনিটের মধ্যেই আপনি বেশ মোটা অঙ্কের কমিশন পেয়ে গেলেন। এবং আপনি যদি পরিস্থিতি বুঝে এবং যথা সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন তাহলে মাত্র কয়েক মাস এর মধ্যেই আপনি আপনার ব্যবসা থেকে বেশ লাভজনক আয় করতে সক্ষম হবেন।

আপনি কেন স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিন কে বেছে নিবেন:
স্ক্রিন প্রিন্টিংয়ের উচ্চ প্রাথমিক সেট আপ ফি রয়েছে। তবে উচ্চ পরিমাণে মুদ্রণের সবচেয়ে সহজ উপায়। কারণ একবার মুদ্রণ প্রক্রিয়া সেটআপ করা সহজ। একাধিক রঙ ব্যবহার করে একাধিক স্থানে বড় আকারের প্রিন্টগুলি করার সময় স্ক্রিন প্রিন্টিং ব্যয়বহুল। প্রতিটি মুদ্রণের অবস্থানের জন্য প্রতিটি রঙের জন্য অন্য স্ক্রিনের সেট প্রয়োজন।

স্ক্রিনপ্রিন্টিং ব্যবসায় খোলার সাথে কী কী ব্যয় জড়িত ?

একটি স্ক্রিন প্রিন্টিং ব্যবসা খোলার তুলনামূলক সস্তা। আপনার প্রয়োজনীয় বিশেষ প্রিন্টারের জন্য সাধারণত 80,000 টাকা বা তারও কম খরচ হতে পারে; মুদ্রণের জন্য অনেকগুলি শার্ট সহ আপনাকে যে সরবরাহগুলি শুরু করতে হবে সেগুলি সাধারণত 40,000 টাকা থেকে কম পাওয়া যায়।

যদি আপনি নিয়মিত অর্ডার পান এবং একটি উচ্চ-মানের মেশিন টপ-প্রোডাক্ট টি-শার্ট ব্যবহার করেন, আপনি বছরে আনুমানিক 8,00,000 থেকে 10,00,000 টাকা পরিমাণ শুধু লাভ উপার্জন করতে পারবেন। তবে আপনি ব্যবসা শুরু করার সময় আপনি প্রথম দিকে খুব বেশি আয় করতে পারবেন না। কিন্তু আপনি আপনার এই বিজনেসকে একটি রেগুলার বেসিস এ পরিণত করতে পারলে খুব শীঘ্রই আপনি স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিন এর মাধ্যমে বেশ লাভ করতে পারবেন।

Read More >>  ব্যবসা নিয়ে উক্তি

তবে আপনি যে প্রতিটি শার্ট বিক্রি করছেন তার জন্য আপনি কী পরিমাণ তালিকাভুক্ত করবেন তা নির্ভর করে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। আপনি কতগুলি ডিজাইন আপলোড করতে পারবেন তার একটি ক্যাপ থাকায় অ্যামাজনে টি-শার্ট বিক্রি ধীর শুরু হতে পারে। তবে, আপনি যত বেশি আপলোড এবং বিক্রয় করবেন, তত বেশি লাভ হবে।

তাই আপনি যত দীর্ঘদিন ধরে আপনার স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিন এর বিজনেস কে বাড়াতে থাকবেন, তত বেশি আপনার ব্যবসায় লাভ আনতে পারবেন।

আমরা আগেই বলেছি আজ আপনাদের ধারণাকে পুরো পাল্টে দিব। আমাদের বিশ্বাস আপনারা আজ আমাদের এই লেখনীর মাধ্যমে যথার্থ উৎসুক হয়ে উঠেছেন।

তো আর দেরি না করে আজ থেকেই পরিকল্পনা শুরু করুন এবং উদ্যোগ গ্রহণ করুন। পরিশেষে স্ক্রিন প্রিন্টিং মেশিন এর বিজনেস এর মাধ্যমে আপনিও হয়ে উঠুন একজন সফল ব্যবসায়ী!

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *