ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয়

Table of Contents

ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয় সেই সম্পর্কে এখানে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে । বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম হচ্ছে ইউটিউব। এবং ইন্টারনেট ব্যাবহার করেন কিন্তু ইউটিউবে ভিডিও দেখে না এমন মানুষের পরিমান খুবই কম। প্রতিদিন মিলিয়ন বিলিয়ন মানুষ ভিডিও দেখছে ইউটিউবে। কিন্তু এসকল ভিডিওর একটিও কিন্তু ইউটিউব কোম্পানি নিজে তৈরি করে না। সকল ভিডিও তৈরি করে বিভিন্ন মানুষ এবং তা ইউটিউবে আপলোড করে আপনার আমার দেখার সুযোগ করে দেয়। কিন্তু কোন স্বার্থে তারা এই ভিডিও আপলোড করেন? আমরা সকলেই জানি ইউটিউব থেকে আয় করা যায় “ইউটিউব চ্যানেল” খোলার মাধ্যমে! কিন্তু ইউটিউব চ্যানেল থেকে কিভাবে টাকা আয় হয় বা ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয় তা আমাদের অনেকরই আজানা। এবং এটি নিয়ে বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারণা ও কাজ করে সাধারণ মানুষের মধ্যে। আসুন তাহলে ইউটিউব থেকে আয় সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা ও ইউটিউব থেকে কিভাবে টাকা আয় হয় বা তারা কিভাবে টাকা দেয় জেনে নেই!

ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয়

আমরা সকলেই জানি ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করতে হলে একটি চ্যানেল দরকার হয়। এবং এই চ্যানেলের মাধ্যমে ভিডিও আপলোড করা হয় এবং এর থেকে আয় হয়। কিন্তু যারা নতুন তাদের মনে কিছু প্রশ্ন থেকেই যায় ইউটিউব থেকে আয় হয় কিভাবে এটা নিয়ে। তারা যেসকল কমন প্রশ্ন করে থাকে,
★ ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয়।
★ কত ভিউ হলে কত টাকা দেয়।
★ আমি ইউটিউব চ্যানেল খুললে মাসে কত টাকা আয় করতে পারবো।
★ চ্যানেলে কতগুলো ভিডিও আপলোড করলে তারা টাকা দিবে।
★ কত ভিউ হলে তারা টাকা দিবে ইত্যাদি।ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয়

Read More >>  Oppo Reno 4F Price in Bangladesh

এসকল প্রশ্ন মূলত তারাই করে যাদের ইউটিউব সম্পর্কে নূন্যতম ধারনা নেই! এবং যারা এসকল প্লাটফর্মের আয়ের উৎস সম্পর্কে জানে না। ইউটিউব মূলত আয় করে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে। তারা বিভিন্ন কোম্পানি হতে বিজ্ঞাপন সংগ্রহ করে এবং তা বিভিন্ন ভিডিও এর মাধ্যমে দর্শকদের প্রদর্শন করে। এই বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য তারা সেই কোম্পানি হতে বিজ্ঞাপনের বিনিময়ে অর্থ গ্রহণ করে। কিন্তু ইউটিউব যেহেতু নিজস্ব ভাবে কোন কন্টেন্ট তৈরি করে না তাই কন্টেন্ট ছাড়া একদিকে যেমন তাদের ইউটিউব অচল ঠিক একই ভাবে বিনা পারিশ্রমিকে কেউ নিত্য নতুন ভিডিও আপলোড করবেন না।

এ কারনেই ইউটিউব কোম্পানি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অর্জিত অর্থের নির্দিষ্ট পরিমান অংশ কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের দিয়ে থাকেন। আর এই মাধ্যমেই ইউটিউব টাকা দিয়ে থাকে। কিন্তু এর পরেও প্রশ্ন থেকেই যায়। আমি কি ভিডিও আপলোড করলেই আয় করতে পারবো ?

আরো বিস্তারিত

না ভিডিও আপলোড করলেই আপনি আয় করতে পারবেন না। আয় করতে হলে আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে মনিটাইজেশন অন করতে হবে। মনিটাইজেশন (Monetization) হলো ইউটিউব আমাদের চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দেখাক এর জন্য আবেদন করা। অর্থাৎ আমার একটি ইউটিউব চ্যানেল আছে এবং এটি থেকে আমি আয় করতে চাই। এবং যেহেতু আয় আসে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তাই মনিটাইজেশন-ই হলো আয়ের একমাত্র মাধ্যম। তবে আপনি চাইলেই চ্যানেল মনিটাইজেশন করতে পারবেন না। এর জন্য রয়েছে কিছু শর্ত। চ্যানেলে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার থাকতে হবে এবং ভিউওতে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম। এবং সম্পুর্ন কপিরাইট মুক্ত কন্টেন্ট। কারন কপিরাইট কন্টেন্ট হলে কোন দিনই আপনি আয় করতে পারবেন না ইউটিউব হতে। এসকল শর্ত পূরন করতে পারলেই আপনি আবেদন করতে পারবেন। এবং যদি সব ঠিকঠাক থাকে আপনি মনিটাইজেশন পাবেন।

Read More >>  Xiaomi Redmi 10X Price in Bangladesh

যখন আপনার ভিডিও ভিউ হবে তখন তারা আপনার ভিডিওয়ের ভিতরে অটোমেটিক বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবে। এবং এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে যত টাকা তারা আয় করবে তার থেকে আপনি একটা নির্দিষ্ট পরিমান টাকা পাবেন।

যখন ভিডিও এর ভিতরের বিজ্ঞাপনে কোন ভিজিটর ক্লিক করবে তখন তারা আপনার এডসেন্স একাউন্টে জমা করে দিবে এবং আপনি ব্যাংক একাউন্ট কানেক্টেড করার মাধ্যমে বাংলাদেশের যে কোন ব্যাংক হতে টাকা তুলতে পারবেন। প্রতিমাসে একটি নির্দিষ্ট তারিখে তারা টাকা পাঠিয়ে দিবে। তবে পেমেন্ট পেতে হলে অবশ্যই আপনার এডসেন্স একাউন্টে কমপক্ষে ১০০ ডলার হতে হবে। কারন গুগল ১০০ ডলারের নিচে পেমেন্ট করে না।

তবে এখানে মনে রাখত হবে আপনি চাইলে-ই নিজেই ক্লিক করে আয় করতে চাইলে সব হারাবেন। কারন গুগল চায় তাদের গ্রাহককে সকল সময় সর্বোচ্চ মানের সেবা প্রদান করতে। এবং তাদের দ্বারা প্রদত্ত বিজ্ঞাপন যেন সঠিক গ্রাহকদের সামনেই উপস্থাপন হয় সে বিষয়েও তারা বদ্ধপরিকর। এ কারনে যদি আপনি আয় বৃদ্ধির জন্য নিজেই ক্লিক করেন তাহলে আপনার এডসেন্স একাউন্ট টি ডিজেবল করে দিবে তারা এবং আপনার ইউটিউব চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন বন্ধ করে দিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *