হিংসা নিয়ে উক্তি

Table of Contents

হিংসা নিয়ে উক্তি ও হাদিস নিয়ে এখানে আলোচনা করা হলো । আশা করি এই উক্তি ও হাদিস গুলো পড়ে অনেক ভালো লাগবে । ভালো লাগলে আমাদেরি এই পেইজের লিংকটি নিজের ফেসবুক পেইজে শেয়ার করবেন । যাতে করে অন্যরাও কিছু শিখতে পারে । মুল কথা, হিংসার ক্ষতিকর দিক গুলো আমাদের সবার জানা খুবই জরুরী । আরো পড়তে পারেন >>> ইসলামিক বানী ও উক্তি

হিংসা নিয়ে উক্তি

তোমরা পরস্পরের প্রতি হাসাদ করো না, একে অন্যের পেছনে পড়ো না। আর তোমরা পরস্পর ভাই হিসেবে আল্লাহর বান্দা হয়ে যাও।
মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)

তোমরা হিংসা করা থেকে বেঁচে থাকো। কেননা, হিংসা নেক আমলকে সেভাবে খেয়ে ফেলে, যেভাবে আগুন কাঠকে খেয়ে ফেলে।
মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)হিংসা নিয়ে উক্তি

লোভ, হিংসা, অহংকার – ধ্বংসের মুল ।
প্রচলিত প্রবাদ

হিংসা উন্নতির অন্তরায় ।
প্রচলিত প্রবাদ

আপনি যা পেয়েছেন তা নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না বা অন্যকে হিংসা করবেন না। যে অন্যকে হিংসা করে সে মনের শান্তি পায় না।
গৌতম বুদ্ধ

হিংসা আত্মার রোগ ।
সক্রেটিস

বাঙালির দুরারোগ্য অসুখের নাম হলো হিংসা ।
সংগৃহীত

হিংসা কারো ক্ষতি করতে পারে না, নিজের ছাড়া ।
প্রবাদ

আমরা যাদের হিংসা করি, তাদের সুখের চেয়ে আমাদের হিংসা সর্বদা দীর্ঘস্থায়ী হয়।
এপিসাস

হিংসা অন্ধ এবং সে অন্যের গুন গুলো কখনই দেখে না ।
লাইভি

হিংসা অন্যের দিকে লক্ষ্য করে এবং আঘাত করে ।
প্রবাদ

আপনি একই সাথে হিংসুক ও সুখী হতে পারবেন না ।
টিগের

হিংসা ও প্রশান্তি কখনই একসাথে থাকতে পারে না ।
প্রবাদ

হিংসা মানুষকে নিচে নামিয়ে দেয় আর অনুপ্রেরনা উপরে উঠতে সাহায্য করে।
প্রবাদ

হিংসা নিয়ে হাদিস

‘নিশ্চয়ই যেভাবে আগুন কাঠকে ভক্ষণ করে [জ্বালিয়ে নিঃশ্বেষ করে], হিংসাও ঈমানকে ভক্ষণ করে’।
— (আল কাফী, খণ্ড ২, পৃষ্ঠা ৩০৬, হাদীস নং ১)

‘একে অপরের সাথে হিংসা করা থেকে বিরত থাকো, কেননা হিংসা হলো কুফরের ভিত্তি স্বরূপ’।
— (আল কাফী, খণ্ড ৮, পৃ. ৮, হাদীস নং ১)হিংসা নিয়ে হাদিস

‘হিংসুকের তিনটি চিহ্ন রয়েছে : পিঠ-পিছনে গীবতকরে, সামনা সামনি তোষামোদ করে এবং অন্যের বিপদে আনন্দিত হয়।’
— (আল খেসাল, পৃষ্ঠা ১২১, হাদীস নং ১১৩)

পোস্ট টি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । এই উক্তি গুলো থেকে আমাদের অনেক কিছু জানার আছে । আমাদের সবাইকে হিংসা থেকে দূরে থাকতে হবে এনং অন্যকেও দূরে রাখতে হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *