দাওয়াত নিয়ে উক্তি

দাওয়াত নিয়ে উক্তি (Bangla quotes about dawah): ইসলামে দাওয়াত শব্দের অর্থ কাউকে ডাকা বা আহ্বান করা। একজন মুমিনের একান্ত কর্তব্য হলো অন্য কাউকে ধর্মের জ্ঞান পৌঁছে দেওয়া। তবে ধর্মের কথা বলতে গেলে দাওয়াত সম্পর্কে অনেক উক্তির প্রয়োজন পড়ে। তাই দাওয়াত সম্পর্কে বেশকিছু উক্তি এখানে উল্লেখ করেছি। আশা করি পুরোটা পড়লে আপনার ভালো লাগবে এবং দাওয়াতের কাজে মনোবল আরো বাড়াতে পারবেন।

দাওয়াত নিয়ে ২৬ টি দরকারি উক্তি :

“হতে হবে দাওয়াত; দুশমনি নয়।”
– হজরত থানভী (রহ.)

“দাওয়াত ও তাবলিগ ইসলামের প্রাণশক্তি।”
– আল্লামা সায়্যিদ আবুল হাসান আলী নদভী (রহ.)

“আমার পক্ষ থেকে একটি বাণী হলেও পৌঁছে দাও।”
– সহীহ বুখারী

“ইসলামের আসল দাওয়াত হলো একজন মুসলমানের চরিত্র।”
– নুমান আলী খান

“মানুষকে কথা দিয়ে নয় নিজের ব্যবহার দিয়ে ইসলামে দাওয়াত দিন।”
– ওমর ইবনে আল খাত্তাব

“তোমাদের মধ্য থেকে কাউকে দাওয়াত করা হলে কবুল করা উচিত।”
– আবু দাউদ ও মুসলিম

“বকরির পায়ার জন্যও যদি আমি দাওয়াত প্রাপ্ত হই, কবুল করে নেব।”
– বুখারি ও তিরমিযী

“একজন মানুষকে হেদায়েত করতে পারা দুনিয়ার সর্বোত্তম নিয়ামত।”
– বোখারি ও মুসলিম

“যে ব্যক্তি আল্লাহর দ্বীন বুলন্দ করার জন্য লড়াই করে, সে আল্লাহর রাস্তায়।
-সহীহ বুখারী

“আমি তোমাদের কাছে দাওয়াতে দ্বীনের জন্য কোনো পারিশ্রমিক চাই না।”
– সূরা শোয়ারা- ১২৭

“আমার পক্ষ থেকে একটি আয়াত জানা থাকলেও তা অন্যের কাছে পৌঁছিয়ে দাও।”
– সহীহ বুখারীদাওয়াত নিয়ে উক্তি

“সকল নবী-রাসূল নিজ উম্মতকে এক আল্লাহর ইবাদতের দাওয়াত দিয়েছেন।”
– সূরা আম্বিয়া : ২৫

“তোমার স্বীয় রবের পথে লোকদের দাওয়াত দাও হেকমত এবং সুন্দর বক্তব্যের মাধ্যমে।”
– সূরা নাহল

“ওই ব্যক্তির চেয়ে উত্তম কথা আর কার হতে পারে যে মানুষকে আল্লাহর পথে দাওয়াত দেয়”
– সূরা হামিম সিজদাহ- আয়াত: ৩৩

“অন্যকে দাওয়াত দিতে গিয়ে নিজেকে ভুলে যাবেন না। কারণ পরিবর্তন নিজেকে দিয়েই শুরু করতে হয়।”
– ড. বিলাল ফিলিপ্স

“তোমরা সহজ করো, কঠিন করো না। সুসংবাদ দাও, তাদের মধ্যে ঘৃণা সৃষ্টি করো না।”
– মুসলিম শরিফ

“তারা (নেককাররা) দাওয়াত দেয় এবং বলে ‘আমাদেরকে মুত্তাকিদের ইমাম বানিয়ে দিন।”
– সুরা ফোরকান: আয়াত ৭৪

“হে জনগণ! তোমরা যারা উপস্থিত আছ, তাদের দায়িত্ব হচ্ছে অনুপস্থিতদের কাছে আমার বাণীগুলো পৌঁছে দেয়া।”
– হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)

“তোমরা তার সাথে নরম ভাষায় কথা বলো, যাতে করে সে উপদেশ গ্রহণ করে, অথবা আল্লাহ তায়ালাকে ভয় করো।”
– সুরা ত্বাহা: আয়াত ৪৪

“যে ব্যক্তি হেদায়েতের পথে ডাকবে, সে তার দাওয়াতের অনুসারীদের সাওয়াবের অনুরূপ সাওয়াব পাবে। এটা তাদের সাওয়াবের মধ্যে কোনো হ্রাস ঘটাবে না”
– মুসলিম শরিফ

“মানুষকে তিনি চোখ, কান, বিবেক, বুদ্ধি দিয়েছেন। হকের দাওয়াত তার কাছে পৌঁছিয়েছেন। সত্য-মিথ্যা গ্রহণ ও বর্জনের স্বাধীনতা তাকে দান করেছেন।”
– সূরা বালাদ : ৮-১০; কাহাফ: ২৯

“কাফেররা যেন আপনাকে আল্লাহর আয়াত থেকে বিমুখ না করে, সেগুলো আপনার প্রতি অবতীর্ণ হওয়ার পর আপনি আপনার পালনকর্তার প্রতি দাওয়াত দিন এবং কিছুতেই মুশরিকদের অন্তর্ভুক্ত হবেন না।”
– (কস্ফাসাস :৮৭)

“তোমাদের মধ্যে এমন একটি দল যেন থাকে যারা কল্যাণের দিকে আহ্বান করবে এবং সৎকাজের নির্দেশ দেবে ও অসৎকাজে নিষেধ করবে; আর তারাই সফলকাম।”
– সূরা আলে-ইমরান, আয়াত: ১০৪

“হে নবি, আপনি বলে দিন, এ দাওয়াতের কাজের জন্যে আমি তো তোমাদের কাছে কোনো পারিশ্রমিক চাচ্ছি না। এ তো গোটা জগতবাসীর জন্যে সাধারণ উপদেশ ও নসিহত মাত্র।”
– সূরা আনআম আয়াত: ৯০

“তাদের প্রত্যেক দলের একটি অংশ দাওয়াতের কাজে বের হয় না কেন, যাতে তারা দ্বীন সম্বন্ধে যথার্থ জ্ঞান অর্জন করতে পারে এবং তাদের সম্প্রদায়কে ভীতি প্রদর্শন করতে পারে; যখন তারা তাদের নিকট ফিরে আসবে, যাতে তারা সতর্ক হয়।”
– সূরা তাওবা: ১২২ নং আয়াত

প্রিয় পাঠক, দাওয়াত নিয়ে উপরের উক্তিগুলো কেমন লাগছে ? আশা করি কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে আপনার মূল্যবান মতামত জানিয়ে দিবেন। আর ভালো লাগলে অবশ্যই তা বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দিবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *