ঝর্ণা নিয়ে উক্তি ছন্দ কবিতা স্ট্যাটাস ক্যাপশন

ঝর্ণা নিয়ে উক্তি ছন্দ কবিতা স্ট্যাটাস ক্যাপশন নিয়ে আমাদের আজকের পোস্ট সাজানো হয়েছে । ঝর্ণা দেখতে কে না ভালোবাসে । প্রকৃতির অনেক সুন্দরের মাঝে ঝর্ণা হলো অন্যতম । প্রতি বছর হাজার হাজার মানুষ শুধু মাত্র ঝর্ণা দেখার জন্য বিভিন্ন যায়গায় ঘুরতে যায় । অনেক এই ঝর্ণা নিয়ে কবিতা ও ছন্দ পড়তে ভালোবাসেন । তাদের জন্যই আমরা এখানে অনেক সুন্দর সুন্দর উক্তি কবিতা ও ছন্দ দিয়েছি ।

ঝর্ণা নিয়ে উক্তি ছন্দ কবিতা :

১. ঝর্ণা রা ছন্দে এঁকেবেঁকে চলে,
রূপ কথার অংকে কত কথা বলে!

২. ঝর্ণার ছন্দে প্রবাহিত মন,
কেঁপে ওঠে এই মন, প্রতি ক্ষণে ক্ষণ।

৩. ঝর্ণার দোলুনি যে কত কথা কয়,
মনে মনে কত কথা গোপনে যে রয়!

৪ . ঝর্ণার দেশে পাড়ি দেবো তুমি আর আমি। ঝর্ণার ছন্দে ভিজবো দুজন।

৫. আমার কপালে চুমু এঁকে দিয়ে বল, “চলো, তোমায় ঝর্ণা দেখাতে নিয়ে যাই।”

৬. ঝর্ণা সে যে বড্ড প্রিয়! আমার পছন্দের জিনিস।

৭. ঝর্ণা কাঁদলে পুরো প্রকৃতি উজাড় করে বৃষ্টি নামায়।

৮. আমার মধ্যে ঠিক তখনই তারুণ্য আর জীবনীশক্তি অনুভব করি, যখন আমি ঝর্ণার কাছাকাছি কোথাও ঘুরতে যাই।

৯. ঝর্ণার আবেশে হয় মন খারাপ দূর,
ঝর্ণার কলতানে মাতোয়ারা সুর।ঝর্ণা নিয়ে উক্তি ছন্দ কবিতা স্ট্যাটাস ক্যাপশন

১০. আমার মন খারাপ দূর করতে আমি সবসময় ই ঝর্ণার পানে ছুটে যাই।

১১. ঝর্ণা আমার সকল মন খারাপ আর অভিমান, একরাশ বুকের মধ্যে জমে থাকা কষ্ট দূর করার একমাত্র উপশম।

১২. ঝর্ণা যেখানে থাকে, তুমি আমাকে ঠিক সেখানেই খুঁজে পাবে। ঝর্ণা ছাড়া আমি এক মুহূর্ত ও আর অন্য কোথাও যাই না।

১৩. আমি ঝরনা কে নিয়ে লিখতে বসে আমার কাগজ নষ্ট করি বারেবার।

১৪. ঝরনা আমার ভীষণ প্রিয় জানতে কি তা তুমি?

কিচ্ছু জানোনা, আমার সাথে প্রেম করো কেন শুনি?

১৫. আমি ছুটি পেলেই বারেবার ঝর্ণার দেশে পালিয়ে যাই।

১৬. চলো সব কাজ ফেলে দিয়ে ঝর্ণার দেশে পাড়ি জমাই।

১৭. ঝর্ণার অপরূপ সৌন্দর্য বারবার কাছে টানে,
তার তাক লাগানো সৌন্দর্য ই তার কাছে ফিরে ফিরে আনে!

১৮. ঝর্ণা এতো অপরূপ সুন্দর হয় কেন?

১৯. আশেপাশে গভীর ঘন জঙ্গল। দূর থেকে দেখা যায়, পাহাড়ের নিশানা। মাঝ দিয়ে ছুটে চলেছে এক অবাধ জলধারা; তার নাম ই ঝর্ণা।

২০. ঝর্ণার পানিতে স্নান করে ই আমার সকল অঙ্গ জুড়ায়।

২১. ঝর্ণার মধ্যে সোনামুখী এক অদৃশ্য জাদু আছে; যা পর্যটকদের বারবার তার কাছে টেনে আনে।

২২. চাই না পাহাড়, চাই না সমুদ্র। চাই শুধু ঝর্ণার সমাহার।

২৩. কতক্ষণ ধরে হেঁটে চলেছি ঝর্ণার দেখা পাবার আশায়!

২৪. আমার কান্নাগুলো এসে মিশে যায় ঝর্ণার অথৈ জলে। তখন কেউ আর সেই কান্নার হদিস করে উঠতে পারে না।

২৫. তোমার মন কেমনের ঝর্ণায় আমার অনুভূতিগুলো বারবার টোকা লাগে।

২৬. বুক চাপা কান্না গুলো ঝর্ণার জলে এসে মেশে।

২৭. ঝর্ণা অঝোর ধারায় ঝরে যায় পাথর আর মাটির সীমানার মধ্যি খানে।

২৮. ঝর্ণা রা সব এলোমেলো হয়ে ঘুরে আমার আঙ্গিনা তটে, পারি না তাদের ধরতে।

২৯. ঝর্ণা রা সব স্বপ্নে এসে আমার কাছে ধরা দেয়। কিন্তু ঘুম ভাঙতেই দেখি, সেগুলো নেই। হারিয়ে গেছে।

৩০. আমি ঝর্ণার পানে অবাক নয়নে তাকিয়ে থাকি। কত সুন্দর তুমি হে!

৩১. ঝর্ণা আমাকে বাঁচতে শেখায়, নতুনভাবে চলতে শেখায়, জীবনকে ভালোবাসতে শেখায়, উদার হতে শেখায়। তাই তো ঝর্ণা আমার এত্ত প্রিয়!

৩২. ঝর্ণা যে এঁকেবেঁকে চলছে,
চুপি চুপি কত কথা বলছে!

৩৩. আমি ঝর্ণার দেশে ঘুরে বেড়াই নিশাচর হয়ে।

৩৪. ঝর্ণা! সে তো মিষ্টি ভারি, এতো মিষ্টি কেন হয়?

চোখের কোণে অঝোর ধারায় কান্না হয়ে বয়।

৩৫. ঝর্ণা রা সব মুচকি হেসে বিদায় জানায় আমাকে।

Read More >>  ভবিষ্যৎ নিয়ে উক্তি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *