নীরবতা নিয়ে উক্তি

নীরবতা বা চুপ থাকা নিয়ে ১৯টি উক্তি ও স্ট্যাটাস ক্যাপশন দেয়া হলো নিচে । আমাদের মধ্যে অনেকেই নিরব থাকা পছন্দ করেন । আসলে নিরবতা মানে চুপ থাকা নয় । নিরবতা মানে অনেক প্রশ্নের একটাই উত্তর । একজন মানুষের নিরবতার অনেক কারণ থাকতে পারে । তবে বেশীর ভাগ মানুষ নীরব হয়ে তখনই যখন যে খুব বড় কোন আঘাত পায় মনে । অনেক কষ্ট মনে জমা থাকে, কিন্তু কাউ বলার মত পরিস্থিতি থাকে না । শুধু এই কারনেই মানুষ নীরব হয়ে যায় না, নীরবতার আরো অনেক কারণ থাকে । চলুন তাহলে নিচের নীরবতা নিয়ে উক্তি গুলো পড়ে দেখি কি সেই কারণ গুলো ।

নীরবতা নিয়ে উক্তি :

১. তোমার নীরবতা কখনোই তোমাকে রক্ষা করতে পারবে না।
— আদুরী লর্ডে

২. যখন সত্য নীরবতা দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয় তখন সেই নীরবতা হলো একটি মিথ্যার সমান।
— ইয়েভগেনি ইয়েভতুসেন্কু

৩. নীরবতা হলো এক মহা শক্তির আধার।
— লাও যু

আরো আছেঃ >> প্রতিশ্রুতি নিয়ে উক্তি

৪. মিথ্যা শুধু কথার দ্বারাই নয় বরং নীরবতা দ্বারাও তা করা যায়।
— এড্রিয়েনি রিচ

৫. সবচেয়ে বাজে মিথ্যে গুলো সব সময় নীরবতার দ্বারাই সাধিত নয়।
— রবার্ট লুইস স্টিভেনসন

৬. নীরবতা যখন মিথ্যা তখন নীরব থাকা সহজ হয় না।
— ভিক্টর হুগো

আরো আছেঃ >> নিন্দা নিয়ে উক্তি

৭. নীরবতা হলো ক্ষমতার সবচেয়ে বড় অস্ত্র।
— চার্লস ডি গাউলে

৮. তোমার প্রখর নীরবতা তোমার সম্মতিকে নির্দেশ করে।
— ইউরোপিডসনীরবতা নিয়ে উক্তি

৯. নীরবতা কোনো ফাপা বুলি নয় বরং তা হলো হাজারো উত্তরে ভর্তি।
— সংগৃহীত

১০. নীরবতা হলো একজন প্রকৃত জ্ঞানীর প্রতিত্তর।
— ইউরোপিডস

১১. নীরবতা তখনই কথা বলে যখন ভাষা কথা বলতে পারে না।
— সংগৃহীত

১২. একজন ভালো শ্রোতা হতে হলে তোমাকে অবশ্যই নীরবতা কাকে বলে শিখতে হবে।
— উরসুলাক লেগুন

১৩. যে নীরবতাকে বুঝতে পারে না সে তোমার শব্দকেও খুব একটা বুঝতে পারবে না।
— এলবার্ট হাববার্ড

১৪. দূরত্ব সম্পর্কের ছেদ ঘটায় না বরং নীরবতাই তা করে।
— জেফ হুড

১৫. যে তোমার ভাষার প্রাধান্য দিতে পারে না নীরবতাই তার প্রতি সর্বোত্তম উত্তর।
— সংগৃহীত

১৬. কখনো কখনো তোমাকে কিছুই বলতে হয় না নীরবতাই পুরোটা বলে দেয়।
— রুমি

১৭. ভাষা তোমার মনকে সন্তুষ্ট করতে পারে তবে নীরবতা তোমার আত্মাকে প্রশান্ত করবে।
— নিতিন নামডেও

১৮. নীরবতাকে নিজের দুর্বলতা নয় নিজের শক্তি বানিয়ে ফেলো।
— সংগৃহীত

১৯. নীরবতা সম্মতির লক্ষণ।
— প্রবাদ

নিরবতা আমাদের জন্য কখনো ভালো আবার কখনো খারাফ । তাই যখন যেখানে যেমন থাকলে ভালো, আমরা চেষ্টা করবো, পরিবেশের সাথে খাফ খাইয়ে চলতে । তাহলেই আমরা ভালো থাকতে পারবো । অনেক ধন্যবাদ আমাদের লেখা টি পড়ার জন্য।

নিরবতা নিয়ে স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন :

১. নীরবতা হল ধ্যান, জ্ঞান, সংযম প্রভৃতির শব্দহীন প্রকাশ। যে নীরব থাকে সে তার হৃদয় ভর্তি কথা জমিয়ে রাখে।

২. মাঝে মাঝে নীরবতাই হাজারো কথার সাক্ষী দেয়। মানুষ যখন আর কোন কথা বলতে চায় না। তখনই সে নীরবতাকে সমর্থন করে।

৩. চোখ ভরা কথা আর নির্বাক শ্রোতা হয়ে যাওয়া মানুষটাও, একসময় প্রচন্ড কথা বলতো। আজ হয়তো তার আর কিছুই বলার নেই।

৪. কিছু কিছু নীরবতা মাঝে মাঝে মানুষের অসম্পূর্ণতাকে কাঁপিয়ে তোলে। কে জানে! হয়তো সব প্রশ্নের উত্তর সেই মানুষটার নীরবতা।

৫. সাঁঝের আকাশটাও নীরব আমার মতো। এক বিশাল উপমা নিয়ে দাঁড়িয়ে থেকেও কতো নিশ্চুপ, কতো প্রশস্ত।

৬. নিরব আধার রাতও আমার নিশ্চুপ রাত জাগার সঙ্গী। দূরে কোথাও একটা নাম না জানা পাখি তার শব্দের নীরবতাকে ভেঙ্গে দেওয়ার চেষ্টা করে। অবশ্য তাতে কোন লাভ হয় না।‌

৭. পাহাড়ের মত নিরব আর গভীর হয়ে যান। সাগরের উচ্ছ্বাস ও আপনাকে টলাতে পারবে না।

৮. মাঝে মাঝে জ্ঞানী মানুষ ও অতিরিক্ত কথা বলার ফলে, মানুষের কাছে বোকা বলে যান। আবার মাঝে মাঝে বোকা মানুষটাও নীরব থেকে জ্ঞানী হয়ে যান।

৯. নীরবতা আপনার ব্যক্তিত্ব রক্ষার জন্য ঢালস্বরূপ। যা আপনাকে নিচুস্তরে নিয়ে যেতে দেয় না।

১০. নীরবতা যেকোনো তর্ক সমাধানে এক অনন্য শিল্প। আর যারা এই শিল্পকে ধারণ করতে পারে তারাই মূলত বিজেতা।

১১. অনেক কথা বলা বিপদের অন্যতম কারণ। তাই বিপদ এড়াতে নীরবতার পক্ষ নেয়াই শ্রেয়। তাতে অন্তত আশঙ্কা মুক্ত থাকা যায়।

১২. ময়না আর তোতা পাখি কথা বলতে পারে বলেই হয়ত তারা খাঁচায় বন্দি হয়। অন্য পাখিরা নীরব থাকে বলেই নির্বিঘ্নে উড়ে বেড়ায়।

১৩. কিছু কিছু পরিস্থিতিতে আপনি কথা বলবেন তো ফেঁসে যাবেন। আপনি তখন বুঝতে পারবেন নীরবতা কতটা শক্তিশালী।

১৪. কথা বললেই মিথ্যা বলার সুযোগ থাকে বেশি। অথচ নিরব থাকলে অপ্রত্যাশিত ভাবে সত্যি ফুটে ওঠে।

১৫. বজ্র কঠিন শব্দের মতই অনেক সময়, মানুষের কণ্ঠস্বর অন্যজনকে আঘাত করে। অথচ একটু নীরবতাই, যে কারো হৃদয়ের ক্ষতে মমতার প্রলেপ লাগিয়ে দিতে পারে। তাই নীরব হতে শিখুন।

নিরবতা নিয়ে কিছু কথাঃ

নিরবতা মানে চুপ থাকা নয় । কিছুক্ষন নীরব থাকার অনেক অর্থ থাকে । কেউ খুব বেশী কষ্ট পেয়ে নীরব হয়ে আবার কেউ অতি আবেগ প্রকাশ করতে না পেরে নীরব হয়ে যায় । নিরবতার অনেক কারণ থাকে । তবে বেশীর ভাগ মানুষ নীরব থাকার কারণ হচ্ছে কষ্ট । যখন কেউ অনেক কষ্টে থাকার পরও নিজের জন্য কিছুই করতে পারে না বা কোন কিছু করার উপায় থাকে না তখন সে নীরব হয়ে যায় । আমাদের সবার জীবনে কোন না কোন কষ্ট থাকে, আর সেই কষ্ট যদি সীমানা অতিক্রম করে, তখনই কেবল আমরা নীরব হয়ে যাই । অল্প কষ্টে কেউ নীরব থাকে না, অল্প কষ্ট পেলে মানুষ প্রতিবাদ করে বা কষ্টের কারণ খুঁজে তার সমাধান করার চেষ্টা করে । কিন্তু এই কষ্টের চাপ যদি অনেক বেশী হয়, যা তার পক্ষে ভার নেয়া সম্ভব হচ্ছে না, তখনই কেবল সে নীরব থেকে যায় । যা হোক আশা করি আমাদের এই লিখা আপনাদের ভালো লেগেছে । যদি সামান্য ভালো লেগে থাকে তাহলে দয়া আমাদের সাথেই থাকবেন । অনেক অনেক ধন্যবাদ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x