সাবা নামের অর্থ কি

সাবা নামের অর্থ কি ? সাবা পৃথিবীব্যাপী একটি জনপ্রিয় নাম। মেয়েদের নাম হিসেবে অনেক পিতামাতা-ই নামটি পছন্দ করে থাকেন। বিশেষভাবে মুসলিম সমাজে নামটি খুবই জনপ্রিয়। এর অন্যতম কারণ নামটি উচ্চারণ করা খুবই সহজ এবং এটি একটি আরবি নাম। চলুন আমরা জেনে নিই সাবা নামের অর্থ, এর উৎপত্তিসহ আরও নানা তথ্য।

সাবা নামের অর্থ কি ?

সাবা নামের সাধারণ অর্থ মৃদুমন্দ বাতাস বা কোমল শীতল হাওয়া। সাবা শব্দটি বিভিন্ন ভাষায় দেখা যায় যেখানে এর অর্থগত কিছু পার্থক্য রয়েছে। আরবিতেও সাবা শব্দটির অনেক অর্থ রয়েছে। যেমনঃ ভোরের শীতল হাওয়া, বসন্তের বাতাস, পশ্চিমা বায়ু, যত্ন প্রভৃতি। আবার ফ্রেঞ্চ ভাষায় কাছাকাছি উচ্চারণের সাবে (sabe‘) শব্দটি রয়েছে যার অর্থ সুস্বাদু এবং সুঘ্রাণযুক্ত।

উৎপত্তিঃ

মূলত সাবা (صَبا) নামটি আরবি ভাষার একটি শব্দ। মুসলিম সমাজে সাবা নামটি এত জনপ্রিয়তার আরও কারণ রয়েছে। পবিত্র আল-কুরআনের ৩৪তম সূরার নাম “সূরা সাবা”। এই সূরায় ৫৪ টি আয়াত রয়েছে যেখানে নবী হযরত সুলাইমান (আঃ) এবং হযরত দাউদ (আঃ) কে নিয়ে কিছু ঘটনা বর্ণিত আছে। এই সূরায় “সাবা” নামক একটি স্থানের ঘটনাও উল্লেখ আছে। সূরাটিতে আমরা দেখতে পাই সাবার অধিবাসীদের জন্য মহান আল্লাহ তায়ালা দুটি উদ্যান নিয়ামত হিসেবে দান করেছিলেন। আল্লাহ তায়ালা সাবা অঞ্চলকে স্বাস্থ্যকর শহর হিসেবে কুরআনে উল্লেখ করেছেন।সাবা নামের অর্থ কি
মজার বিষয় হল আল-কুরআনের পাশাপাশি হিব্রু ভাষায় লিখিত পবিত্র বাইবেলেও প্রায় একই রকম ঘটনা লক্ষ্যণীয়। সেখানে সেবা নামক একটি অঞ্চলের রাণীর ঘটনা উল্লেখ আছে। আরও অবাক করা বিষয় হল প্রাচীন গ্রীক পুরাণেও সেবা অঞ্চলের মহিলাদের নিয়ে কিছু ঘটনা খুজে পাওয়া যায়।

Read More >>  শারমিন নামের অর্থ কি ?

আরো জানুনঃ>>> রাসেল নামের অর্থ কি

উচ্চারণ ও বানানঃ

সাবা মাত্র দুটি বর্ণের ছোট একটি নাম যা উচ্চারণ করা খুবই সহজ এবং শ্রুতিমধুর। নামটি এর উৎপত্তিস্থল আরবি ভাষায় লেখা হয় صَبا। উর্দু যেহেতু আরবি বর্ণমালাতেই লেখা হয় তাই উর্দু বানানটিও একই রকম। হিন্দিতে সাবা নামটি লেখা হয় सबा। এছাড়া ফ্রেঞ্চ বর্ণমালায় সাবে শব্দটিকে লেখা হয় sabe‘।

জনপ্রিয়তাঃ

পবিত্র কুরআনে সাবা নামক একটি পূর্ণাঙ্গ সূরা থাকায় নামটি মুসলিম সমাজে খুবই জনপ্রিয় এবং প্রচলিত। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে বিশেষকরে কুয়েতে নারীদের নাম হিসেবে সাবা নামটি ব্যাপক প্রচলিত। এছাড়া দক্ষিন এশিয়ার মুসলিম দেশগুলোর মধ্যেও এই নামটি খুব প্রসিদ্ধ।

সাবা নামের বিখ্যাত ব্যক্তিত্বঃ

পৃথিবীব্যাপী সাবা নামের অনেক বিখ্যাত মুসলিম নারী এবং সেলিব্রিটিদের দেখা মেলে। তন্মধ্যে লেবানিজ গায়িকা নিকোল সাবা, পাকিস্তানি অভিনেত্রী সাবা কামার এবং সাবা হামিদ এবং বাংলাদেশী অভিনেত্রী সোহানা সাবা’র নাম উল্লেখযোগ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.